পহেলা বৈশাখ নিয়ে, উক্তি, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা

পহেলা বৈশাখ নিয়ে, উক্তি, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা

পহেলা বৈশাখ নিয়ে, উক্তি, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা। পহেলা বৈশাখ বা পয়লা বৈশাখ বাঙালি জাতির এক ঐতিহ্যবাহি আনন্দময় দিন। এদিনে বাঙালি জাতি নানা মুখর উৎসবে মেতে থাকেন। বৈশাখের ১ তারিখ বাংলা নববর্ষ এর প্রথম দিন। এদিনটি বাংলাদেশ এবং পার্শ্ববর্তী ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নববর্ষ হিসেবে উৎসবের সাথে পালিত হয়। এছাড়াও অনেক মানুষ রয়েছে যারা পহেলা বৈশাখ বা শুভ নববর্ষের দিনকে নতুনভাবে নিজেদের মাঝে বরণ করে নেয়।

এই উৎসবমুখর দিনটিতে মেলা, শোভাযাত্রা, পান্তা ভাত খাওয়া, ইত্যাদি বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে বাংলা শুভ নববর্ষ উদযাপন করে থাকেন। এই উৎসব শোভাযাত্রাকে বাঙালি জাতি বেশ আনন্দে উদযাপন করে। তাই বাঙালি জাতির জন্য পহেলা বৈশাখ নিয়ে উক্তি স্ট্যাটাস ক্যাপশন ও কবিতা আমাদের এই পেজে তুলে ধরা হলো।

পহেলা বৈশাখ নিয়ে উক্তি

বাঙালি জাতির জন্য বড় বড় মনীষীগণ পহেলা বৈশাখ নিয়ে কিছু উক্তি দিয়েছেন। যারা এই বাংলা এবং বাঙালি মানুষকে অত্যন্ত ভালোবাসতেন। তাই আজ আমরা সে উক্তি গুলো দেখব।

> পহেলা বৈশাখ বাঙালি জাতির পান্তাভাত ও ইলিশ মাছের খাবার উপভোগ করার দিন। 

> মাঘে মুখী, ফাল্গুনে চুখি, চৈতে লতা, বৈশাখে পাতা।
( ক্ষণা)

> চৈত্রেতে থর থর বৈশাখেতে ঝড় পাথর জ্যৈষ্ঠতে তারা ফুটে তবে জানবে বর্ষা বটে।
(ক্ষণা)

> চৈত্রে চালিতা, বৈশাখে নালিতা, আষাড়ে-ভাদ্রে তালের পিঠা। আর্শ্বিনে ওল, কার্তিকে কৈয়ের ঝুল
( ক্ষণা)

> চৈত্রে দিয়া মাটি বৈশাখে কর পরিপাটি।
(ক্ষণা)

> বৈশাখের প্রথম জলে, আশুধান দ্বিগুণ ফলে।
(ক্ষণা)

> চৈতে গিমা তিতা, বৈশাখে নালিতা মিঠা, জ্যৈষ্ঠে অমৃতফল আষাঢ়ে খৈ, শায়নে দৈ। ভাদরে তালের পিঠা, আশ্বিনে শশা মিঠা, কার্তিকে খৈলসার ঝোল, অগ্রাণে ওল। পৌষে কাঞ্ছি, মাঘে তেল, ফাল্গুনে পাকা বেল।
( ক্ষণা)

> শুনরে বেটা চাষার পো, বৈশাখ জ্যৈষ্ঠে হলুদ রো। আষাঢ় শাওনে নিড়িয়ে মাটি,ভাদরে নিড়িয়ে করবে খাঁটি। হলুদ রোলে অপর কালে, সব চেষ্টা যায় বিফলে।
(ক্ষণা)

> এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ তাপসনিশ্বাসবায়ে মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে, বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক যাক পুরাতন স্মৃতি, যাক ভুলে যাওয়া গীতি, অশ্রুবাষ্প সুদূরে মিলাক। মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা, অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।
( রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)

> বৈশাখ হে, মৌনী তাপস, কোন্‌ অতলের বাণী এমন কোথায় খুঁজে পেলে। তপ্ত ভালের দীপ্তি ঢাকি মন্থর মেঘখানি এল গভীর ছায়া ফেলে॥
(রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর) 

পহেলা বৈশাখ নিয়ে স্ট্যাটাস

অনেকেই আমরা পহেলা বৈশাখ নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে থাকি। তাদের জন্য আমাদের এই পেজে পহেলা বৈশাখ নিয়ে বাছাই করা কিছু স্ট্যাটাস আপনাদের জন্য উপস্থাপন করা হল। নিম্নে স্ট্যাটাস গুলো দেখতে পারেন।

> পহেলা উদযাপন হোক নতুন শাড়ি দিয়ে পহেলা উদযাপন হোক নতুন উন্মাদনা দিয়ে।

> বছর ঘুরে এলো আরেক প্রভাতী ফিরে এলো সুরের মঞ্জুরী পলাশ শিমুল গাছে লেগেছে আগুন এ বুঝি বৈশাখ এলেই শুনি মেলায় যাইরে, মেলায় যাইরে বাসন্তী রঙ শাড়ী পরে ললনারা হেটে যায়
( মাকসুদ) 

> পৌষের কুয়া বৈশাখের ফল। য’দ্দিন কুয়া ত’দ্দিন জল। শনিতে সাত মঙ্গলে/(বুধ) তিন। আর সব দিন দিন
(ক্ষণা)

> হে ভৈরব, হে রুদ্র বৈশাখ! ধুলায় ধূসর রুক্ষ উড্ডীন পিঙ্গল জটাজাল, তপঃক্লিষ্ট তপ্ত তনু, মুখে তুলি বিষাণ ভয়াল কারে দাও ডাক হে ভৈরব, হে রুদ্র বৈশাখ!
( রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর) 

> ফিরে ফিরে বারবার সে এসেছে প্রতিটি বারে সেই সে নবীন পহেলা বৈশাখ… শুভকামনায় নববর্ষ রঙিন
( সংগৃহীত) 

> দিন চলে যায় ঋতুর খেয়ায়, আসে ও যায় বছর মাস কারো কাটে কষ্টে আবার কেউ বা করে সুখেই বাস বদল খেলায় রঙিন আলোয় সুবজ পাতায় লাগে দোল বছর ঘুরে বোশেখ আসে একতারা ও বাজে ঢোল।
(শাহানারা রশিদ) 

পহেলা বৈশাখ নিয়ে ক্যাপশন 

পহেলা বৈশাখ হোক আনন্দময় ও উদযাপনের দিন। এ প্রত্যাশায় সকলের মনে পহেলা বৈশাখের দিন জেগে ওঠে। আর পাশাপাশি পহেলা বৈশাখ নিয়ে আমরা ক্যাপশন পড়তে ভালোবাসি। পহেলা বৈশাখ নিয়ে নিম্নে ক্যাপশন তুলে ধরা হলো।

>  একটি বছর পর ফিরে আসে এই পহেলা বৈশাখ সকলকে জানাই পহেলা বৈশাখ এর শুভেচ্ছা।

> ফিরে ফিরে বারবার সে এসেছে প্রতিটি বারে সেই সে নবীন পহেলা বৈশাখ-শুভকামনায় নববর্ষ রঙিন
( সংগৃহীত) 

> শোনা যায় ভোরের আযান আর কোকিলের কলতান আর ফেসবুকে জ্বল-জ্বলন্ত নববর্ষের জয়গান
( সংগৃহীত) 

> এক হালি ইলিশের দাম ৪০ হাজার টাকা। গ্রামের মৃৎশিল্পীর পণ্য, বাঁশ ও বেতশিল্পীর কাজ, বিন্নি ধানের খই, সাজ-বাতাসার ব্যবসায়ীদের কী হবে? নিজেকে গ্রাম্য ও রক্ষণশীল পরিচয় দিতে আমার লজ্জা নেই। বৈশাখী মেলায় ঘুরে কেনাকাটার যে আনন্দ ‘হোম ডেলিভারি’তে কি তার চেয়ে বেশি সুখ?
(সৈয়দ আবুল মকসুদ) 

> আনন্দে আতঙ্কে নিশি নন্দনে উল্লাসে গরজিয়া মত্ত হাহা রবে ঝার সঞ্জীব বাধ উন্মাদিনী কালবৈশাখীর নৃত্য হোক তবে ।
( রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর) 

> বৈশাখি মেঘ ঢেকেছে আকাশ, পালকের পাখি নীড়ে ফিরে যায় ভাষাহীন এই নির্বাক চোখ আর কতোদিন? নীল অভিমান পুড়ে একা আর কতোটা জীবন? কতোটা জীবন!!
(রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ)

পহেলা বৈশাখ নিয়ে কবিতা

বাঙালি জাতি আমরা পহেলা বৈশাখ এর আনন্দ উদযাপন এর পাশাপাশি কবিতা পড়তে অনেকেই আমরা ভালোবাসি। কবিতা প্রেমিদের জন্য নিম্নে কবিতা তুলে ধরা হলো।

কবিতা

এসেছে বৈশাখ

দামাল হাওয়া জানান দেয় বৈশাখ যে দ্বারে

পিছন ফিরে চেয়ে দেখি বসন্ত যায় চলে

আমের শাখে গুটি দেখি, কাঠালবাগান ইচড় ;

দামাল হাওয়া আর জানান দেয় পাপিয়া, চাতক খেচর।

চৈত্রের সেই কাঠফাটা রোদ, চৌচির মাঠ ঘাট

চৈতালি শেষে বৈশাখেতেও বসে মেলা-হাট।

হিমচাঁপা আর কৃষ্ণচূড়ায় নন্দিত দৃষ্টি,

জারুল পানে শান্তি আসে প্রতীক্ষাতে বৃষ্টি।

বৃক্ষ তলে শান্তি মিলে রাখাল বাজায় বাঁশি-

বাউলেরা গান ধরে যে, তপ্ত রোদেও হাসি।

নদীর বুকে জল যে কমে-শুষ্ক হাওড় বাওর

কখন যেন ঝড় উঠে তাই যায় না করা ঠাওর। 

সর্বশেষ কথাঃ 

পহেলা বৈশাখ বাঙ্গালীদের জন্য একটি আনন্দময় দিন। যা বাঙালির মানুষ এই দিনটিকে মনে প্রাণে ভালোবেসে উদযাপন করে থাকেন। আর এই ভালোবাসা সকলের মাঝে থাকুক এটাই সকলের কাম্য। সকলের কাছে পহেলা বৈশাখের আনন্দ ছড়িয়ে দিন।

আরো দেখুনঃ 

tech-007

Leave a Reply

Your email address will not be published.